Breaking News
Home / Uncategorized / ফেসবুকে যেকোনো স্ট্যাটাস পোস্ট দেয়ার আগে সতর্ক হোন!

ফেসবুকে যেকোনো স্ট্যাটাস পোস্ট দেয়ার আগে সতর্ক হোন!

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর মধ্যে ফেসবুক হচ্ছে সব থেকে জনপ্রিয় মাধ্যম। আমরা সাধারণ জনগণ সব থেকে বেশি অ্যাক্টিভ থাকি ফেসবুকেই। তাই ফেসবুকেই সব কিছু বেশি শেয়ার করে থাকি। দুঃখ-কষ্ট, সুখ-আনন্দ সব কিছুই শেয়ার করি থাকি পোস্ট বা স্ট্যাটাসের মাধ্যমে। কিন্তু অনেক বিষয় স্ট্যাটাস দেয়ার আগে অবশ্যই আমাদের সতর্ক হওয়া উচিত। কারণ আমাদের একটা পোস্ট অন্য কারো ক্ষতি বা আমাদের নিজেদেরই ক্ষতি ডেকে আনতে পারে।

সত্যতা যাচাই করুন অনেক সময় যেকোনো ঘটনার কথা শুনেই পোস্ট করে দেন অনেকে। সেটি ঘটনা না রটনা, সেদিকে নজর দেন না। এর ফলাফল ইতিবাচক হয় না সব সময়। কারণ অনেক সময় ‘আবেগে’ আমরা অনেক কিছু শেয়ার করে থাকি। পরে দেখা যায়, ঘটনার সত্যতা নেই। তখন এর দায়ভার এসে পড়ে পোস্টদাতার ওপরে। তাই আবেগে নয়, কোনোকিছু পোস্ট করার আগে এর সত্যতা যাচাই করে নিশ্চিত হয়ে নিন।

বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হতে পার কিছু একটা ভালো লাগলে তা বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করা যেতেই পারে। কিন্তু ফেসবুকে এমন কিছু শেয়ার করা উচিৎ নয়, যা পরবর্তীতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে পারে। তাই কোনো কিছু শেয়ার বা পোস্ট দেওয়ার আগে একবার হলেও ভাবুন, ওই পোস্টের কারণে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে কিনা! একই সঙ্গে ফেসবুকে এমন কিছু দেখলে পোস্টদাতা বন্ধুকে সতর্ক করুন। কুরুচিকর মন্তব্য কাউকে নিয়ে যদি অভিযোগ থাকে বা কাউকে অপছন্দ হয়। তবে তাকে নিয়ে ফেসবুকে বাজে পোস্ট দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। বাজে পোস্টের কারণে আপনার রুচির বিকৃতরূপ প্রকাশ পেতে পারে। যা পরবর্তীতে আপনার জন্য বিপদের কারণ হতে পারে।

পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে রোহিঙ্গা অধ্যুষিত আরো কয়েকটি গ্রাম
মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিম অধ্যুষিত আরও কয়েকটি গ্রাম পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছে, মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। নতুন কয়েকটি স্যাটেলাইট ছবি বিশ্লেষণ করে তারা সোমবার এ তথ্য জানায়। ১০ থেকে ১৮ নভেম্বরের মধ্যে নেয়া স্যাটিলাইট ছবিগুলো বিশ্লেষণ করে, ৫টি গ্রামের ৮ শতাধিক স্থাপনা ধ্বংস করে দেয়ার প্রমাণ পাওয়ার কথা জানায় হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

এর আগেও মিয়ানমারের সেনারা ৩ টি গ্রামের বহু বাড়িঘর পুড়িয়ে দেয়ার পাশাপাশি সেখানকার অধিবাসীদের ওপর নির্যাতন চালায় বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। দেড় মাস ধরে চলা এ সহিংসতায় শতাধিক মানুষ নিহত ও বাস্তুচ্যুত হয় ৩০ হাজারেরও বেশি। গতমাসে রাখাইন সীমান্তে নিরাপত্তা চৌকিতে সশস্ত্র বিদ্রোহীদের হামলার পরপরই সেখানকার রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়েছে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। এই সঙ্কট সমাধানে বিশ্ব সম্প্রদায়ের আহ্বানের পরও কোনো দায়িত্বপূর্ণ উদ্যোগ নেয়নি বর্তমান এনএলডি সরকার।

শফীর ফোনে বাবুনগরীর পাসপোর্ট ফেরত
হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর ফোনের পর অবশেষে পাঁচ বছর পর পাসপোর্ট ফেরত পেয়েছেন সংগঠনটির মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী। মঙ্গলবার (২৯ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে হেফাজতে ইসলামের আমির প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিবের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন। এসময় তিনি বাবুনগরীর পাসপোর্ট ফেরত দেয়ার আহ্বান জানান। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে রাজধানীর শাহবাগ বারডেম হাসপাতালে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন বাবুনগীর হাতে পাসপোর্ট তুলে দেন।

এ সময় বাবুনগরীর সঙ্গে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় আমির মাওলানা কারী আতাউল্লাহ বিন হাফিজি ও আল্লামা বাবুনগরীর জামাতা মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন। মঙ্গলবার (২৯ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে আল্লামা বাবুনগরীর ব্যক্তিগত সহকারী মাওলানা ইন’আমুল হাসান ফারুকী গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।বাবুনগরী বর্তমানে বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত শনিবার তিনি অসুস্থবোধ করলে ঢাকায় এনে খিলগাঁও খিদমাহ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছিল। সেখানে থেকে মঙ্গলবার তাকে বারডেম হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। উল্লেখ্য, ২০১০ সালে হেফাজতে ইসলাম প্রতিষ্ঠা হয় এবং ২০১৩ সালে ব্যাপক আলোচনায় আসে। ওই বছরের ৫ মে শাপলা চত্বরের ঘটনার পর বাবুনগরীকে গ্রেফতার ও তার পাসপোর্টটি জব্দ করা হয়। পরে তিনি জামিনে মুক্তি পান।

About admin

Check Also

নিজের মেয়েকে গলাটিপে হত্যাকারী সেই কলংকিত বাবা নামের নরপশুকে আটক করেছে র‍্যাব !

রংপুরের চাঞ্চল্যকর শিশু আলিফা হত্যার আসামী ঘাতক পিতা মোঃ আলাল (দুদু) রাজধানীর তেজগাঁও এর তেজতুরী …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *